ঢাকাWednesday , 12 October 2022
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. কলাম
  5. কৃষি
  6. খেলাধুলা
  7. গণমাধ্যম
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. প্রবাস
  11. বিনোদন
  12. ভ্রমণ
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. লিড
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মটর সাইকেলের চাকার হাওয়া ছেরে দেওয়া কেন্দ্র করে প্রাইভেট হাসপাতালের ম্যানেজার ও ডাক্তারের উপর হামলা চালায় জামান গংরা

Link Copied!

মটর সাইকেলের চাকার হাওয়া ছেরে দেওয়ার প্রতিবাদ করায় একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ম্যানেজার ও এক ডাক্তারের উপর হামলা চালায় জামান কাজী গংরা । ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নারায়নপুর বায়জিদ মেমোরিয়াল হাসপাতাল এলাকায় । এতে ম্যানেজার আসলাম মেম্বার গুরতর আহত হয় ।

সরজমিন ও পুলিশ সুত্রে জানাযায় গত ১১ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৯ টার সময় হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী ডাক্তার ওমর ফারুক শাহীন
প্রতিদিনের মত বায়েজিদ মেমোরিয়াল হাসপাতালের বিপরীতে মিজান সরকারের মার্কেটে তার ভাড়া দোকানের সামনে মোটর সাইকেল পার্কিং করে রাখেন। আর সেখানে জামান কাজির দেকানের কর্মচারী মো. সোমায়েছ কোন কারণ ছাড়া মোটর সাইকেলের চাকার হাওয়া ছেড়ে দেয়।

বিষয়টি জামান কাজীর কর্মচারী সোমায়েছের কাছে জিজ্ঞেস করলে সে বলে এখানে মোটর সাইকেল রাখা যাবে না রাখলে হাওয়া ছেরে দেব পারলে কিছু কইরেন।

এ নিয়ে কাটাকাটি হয় ডা. মো. ওমর ফারুক শাহিনের সাথে পরে তার মামা বায়েজিদ মেমোরিয়াল হাসপাতালের ম্যানেজার মো. আসলাম মেম্বার চাকার হাওয়া ছেড়ে দেয়ার কারণ জানতে চাইলে জামান কাজি উত্তেজিত হয়ে গালমন্দ করতে থাকে এর কিছুক্ষন পর জামান কাজী ও রাশেদ কাজিসহ ১৫-২০ জনের একটি সঙ্ঘবদ্ধ দল নিয়ে বায়েজিদ মেমোরিয়াল হাসপাতালে জামান কাজীর নির্দেশে রাশেদ কাজী,মমিন কাজী,হান্নান কাজী, সোবাহান কাজী, হামজা কাজী, আব্দুল্লা কাজী, পারভেজ ও শান্তসহ ১৫-২০ জন হামলায় চালায় । হামলায় আসলাম মেম্বার গুরতর আহত হয়। আহত ম্যানেজার আসলামকে উদ্ধার করতে আসলে ডা. মো. ওমর ফারুক শাহিন এগিয়ে আসলে তার উপর হামলা চালায় তারা এ সময় ডা. ওমর ফারুকের একটি এন্ডুয়েট মোবাইল ও নগদ ৪৭ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় জামান কাজির লোকেরা। পরে মোবাইল ফেরত দিলেও টাকা ফেরত পাননি তিনি । খবর পেয়ে মতলব দক্ষিন থানার এসআই ফজল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডা. মো. ওমর ফারুক শাহিন জানান আমার ভাড়া দোকানের সামনে মটর সাইকেল রাখলে প্রায় প্রতিদিনই চাকার হাওয়া ছেরে দেওয়া হত । আজ আমার এক ষ্টাফকে বিষটি গোপনে দেখতে বলি সকাল সারে নয়টার সময় জামান কাজী কর্মচারি সোমায়েছ চাকার হাওয়া ছাড়তে দেখার পর জানতে চাইলে আমাকে ও মামা আসলামকে মারধর করে তারা । এ ছাড়াও রাসেদ কাজীর বিরোদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে ।

এ বিষয়ে জামান কাজী বলেন ঘটনার সময় আমি দোকানে ছিলাম না তারা আমার দোকানে এসে অকর্তভাষায় গালমন্দ করায় এলাকার ছেলেরা তাদের মারধর করেছে ।

মতলব দক্ষিণ থানা এসআই ফজল বলেন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যাই এবং উভয় পক্ষকে শান্ত থাকতে বলা হয়েছে । এ ঘটনায় এখনো থানায় কোন অভিযোগ করা হয়নি ।

কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।